উইন্ডোজ, লিনাক্স, ও অ্যান্ড্রয়েড — সব অপারেটিং সিস্টেমের পাসওয়ার্ড বাইপাস করে ফেলুন খুব সহজেই।

সত্যি বলতে আপনি যদি চান যে আপনি কোনো কম্পিইটারের পাসওয়ার্ড বাইপাস করবেন আপনি তা করতে পারবেন কিন্তু জাস্ট আপনার আপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে কিছুটা টেকনিক্যাল ধারনা থাকতে হবে, ভাবছেন “যদি কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড ভুলে গিয়ে বাইপাস বা রিসেট করে নিতে পারি, তাহলে তো যেকেউই আপনার কম্পিউটার পাসওয়ার্ড বাইপাস করে নেবে! তাহলে আপনার নিরাপত্তা কোথায়?” —এতা চিন্তা ভাবনার কিছু নেই, আজকে আমি কিভাবে উইন্ডোজ, লিনাক্স, এবং অ্যান্ড্রয়েডের পাসওয়ার্ড বাইপাস করা যায় এবং সাথে সাথে কিভাবে অন্যের হাত থেকে কম্পিউটারকে রক্ষা করবেন তা-ও দেখিয়ে দিবো, তো চলুন শুরু করি…

বাইপাস – উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে

বহুভাবে উইন্ডোজ কম্পিউটারের জন্য পাসওয়ার্ড বাইপাস বা রিসেট করা সম্ভব। উইন্ডোজ নিজে থেকেই পাসওয়ার্ড রিসেট করার ডিস্ক বা ইউএসবি তৈরি করতে দেয়, যদি আপনি পাসওয়ার্ড ভুলে যান, সেক্ষেত্রে ঐ ডিস্ক বা ইউএসবি ইনসার্ট করে সহজেই যতোখুশি ততোবার পাসওয়ার্ড রিসেট করে নিতে পারবেন।

আর উইন্ডোজ ৮ থেকে ১০ পর্যন্ত আপনার কম্পিউটার’কে মাইক্রোসফট অ্যাকাউন্ট দ্বারা লগইন করে রাখেন, তো জাস্ট মাইক্রোসফট ওয়েবসাইট থেকে মাইক্রোসফট অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ড রিসেট করে নিলেই আপনার কম্পিউটার পাসওয়ার্ড রিসেট হয়ে যাবে।

এগুলো হলো উইন্ডোজ কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড রিসেট করার অফিশিয়াল ম্যাথড। কিন্তু আপনি আন-অফিশিয়াল পদ্ধতি ব্যবহার করেও সহজেই যেকোনো উইন্ডোজের পাসওয়ার্ড বাইপাস করে নিতে পারবেন। অফলাইন এনটি পাসওয়ার্ড অ্যান্ড রেজিস্ট্রি এডিটর —টুলটি ব্যবহার করে যেকোনো উইন্ডোজ পাসওয়ার্ড নিমিষেই বাইপাস করে নিতে পারবেন।

প্রথমে টুলটি ডাউনলোড করে একটি বুটেবল ডিস্ক বা ইউএসবি তৈরি করতে হবে, তারপরে আপনার কম্পিউটারে ডিস্ক বা ইউএসবি’টি বুট করাতে হবে। এই টুলটি আপনার কম্পিউটারের ইউজার অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ড সম্পূর্ণ পরিষ্কার করে দিতে পারে।

তারপরে আপনি নর্মাল ভাবে আপনার কম্পিউটারে বুট করবেন, অ্যাকাউন্ট লগইন করবেন, কিন্তু কোন পাসওয়ার্ড চাইবে না। এমনকি আপনি যদি উইন্ডোজ ৮ বা ১০ ব্যবহার করেন, আর যদি মাইক্রোসফট অ্যাকাউন্ট দ্বারা লগইন করে রাখেন, সেক্ষেত্রেও ঐ পাসওয়ার্ড বাইপাস করেও আপনার কম্পিউটার অ্যাক্সেস করা সম্ভব হবে, এই টুল দ্বারা।

এবার প্রশ্ন হচ্ছে, কিভাবে অন্য কাউকে আপনার কম্পিউটার পাসওয়ার্ড বাইপাস করে কম্পিউটার অ্যাক্সেস করা থেকে আটকাবেন? এই প্রশ্নের সহজ উত্তর হচ্ছে এনক্রিপশন, জি আপনার কম্পিউটারে সম্পূর্ণ ডিস্ক এনক্রিপটেড করার মাধ্যমে আপনি অন্যকে কম্পিউটার অ্যাক্সেস করা থেকে আটকাতে পারেন।

আপনি যদি উইন্ডোজ প্রো ভার্সন ব্যবহার করেন, তো উইন্ডোজ ডিফল্ট বিটলকার ব্যবহার করে সহজেই সম্পূর্ণ কম্পিউটার এনক্রিপটেড করাতে পারবেন। তবে সম্পূর্ণ কম্পিউটার হার্ড ড্রাইভ এনক্রিপশন করানোর জন্য বিট লকার ট্রাস্টেড প্ল্যাটফর্ম মডিউল হার্ডওয়্যারটি খুঁজবে, যদি সেটা না থাকে আপনার কম্পিউটারে তো আপনি ভেরাক্রিপ্ট ব্যবহার করেও আপনার সম্পূর্ণ কম্পিউটার হার্ড ড্রাইভকে এনক্রিপটেড করাতে পারবেন।

চিন্তা করার কোনই কারণ নেই, ভেরাক্রিপট সম্পূর্ণ ফ্রী একটি টুল যেটা বিট-লকারের মতোই কাজ করে। তবে হ্যাঁ, অবশ্যই এনক্রিপশন ডিক্রিপ্ট করার পাসওয়ার্ড বা কী ভুলে গেলে চলবে না। সেক্ষেত্রে আপনি নিজেই আপনার নিজের সিস্টেম থেকে ব্যান হয়ে যাবেন, আর উইন্ডোজ রি-ইন্সটল করা ছাড়া আর কোনই উপায় থাকবে না।

বাইপাস – লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমে

লিনাক্সের ক্ষেত্রে এখানে আমি উবুন্টু নিয়ে আলোচনা করবো, কেনোনা উবুন্টু ডেস্কটপ ইউজারদের জন্য। যাই হোক, আলাদা লিনাক্স ডিস্ট্রো গুলোকে একই পদ্ধতিতে বাইপাস করা সম্ভব। উবুন্টু’র ডিফল্ট বুট মেন্যু থেকে পাসওয়ার্ড রিকভারি করার অপশন পাওয়া যায়। বুট মেন্যু থেকে অ্যাডভানস অপশন সিলেক্ট করে সহজেই আপনি রিকভারি মুডে চলে যেতে পারবেন। যদি আপনার কম্পিউটার অন করার সময় বুট মেন্যু না দেখতে পান, সেক্ষেত্রে সিফট কী চেপে ধরে কম্পিউটার অন করলে বুট মেন্যু চলে আসবে।

আপনি চাইলে বুট মেন্যু থেকে “e” প্রেস করে সরাসরি রুট সেল প্রমট মেনুতে চলে যেতে পারেন। এবার নিচের আর‍্যো কি চেপে জাস্ট কার্নেল অপশনে চলে আসুন,

এবার আপনি নিচের স্ক্রীনের মতো আপনার কম্পিউটারে দেখতে পাবেন;

এবার জাস্ট “ro quiet splash” অংশটি রিমুভ করে দিয়ে নিচের কম্যান্ডটি পেস্ট করে দিন;

rw init=/bin/bash

image

এবার এন্টার হিট করে কার্নেল লাইন অ্যাডজাস্ট করার পরে এবার আপনাকে B প্রেস করে বুট মেনুতে চলে যেতে হবে অপশন সিলেক্ট করার জন্য।

image

এবার সিস্টেম, খুব সহজেই কম্যান্ড প্রমট রান করে দেবে, এবার আপনাকে নিচের কম্যান্ড গুলো প্রবেশ করিয়ে পাসওয়ার্ড রিসেট করাতে হবে।

passwd <username>

ইউজার নেমের জায়গায় আপনার ইউজার নেম বসাতে হবে, যেমন;

passwd techtunes

পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলার পরে নিচের কম্যান্ডটি প্রবেশ করিয়ে জাস্ট আপনার সিস্টেমকে রিবুট করুণ;

sync
reboot –f

উইন্ডোজ কম্পিউটারের মতো লিনাক্সেও আপনার সিস্টেমকে অন্য কারো হতে পাসওয়ার্ড বাইপাস করে সিস্টেম অ্যাক্সেস করা থেকে রক্ষা করতে এনক্রিপশনের সাহায্য নিতে হবে। আপনি যদি উবুন্টু ব্যবহার করেন বা যেকোনো লিনাক্স ডিস্ট্রতে Grub থাকে, আর Grub পাসওয়ার্ড সেট করার মাধ্যমে আপনি যেকাউকে বুট মেন্যু এডিট করা থেকে আটকিয়ে দিতে পারেন।

বাইপাস – অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে

আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইজটি যদি ৫.০ এর আগের ভার্সন হয়, তবে লক স্ক্রীন কোড ভুলে যাওয়ার পরেও সেটাকে বাইপাস করে নিতে পারবেন, কিন্তু দুর্ভাগ্যবসত অ্যান্ড্রয়েড ৫.০ এর পর থেকে এই লক স্ক্রীন কোড বাইপাস করার অপশন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সুতরাং আগের ট্রিক আর মডার্ন ডিভাইজের ক্ষেত্রে কাজ করবে না। পুরাতন ডিভাইজে জাস্ট ভুল পিন/পাসওয়ার্ড/প্যাটার্ন প্রবেশ করাতেই থাকুন, এর পরে কিছুক্ষণ পরে দেখবেন একটি অপশন চলে আসবে “Forgot PIN,” অথবা “Forgot pattern” —ব্যাস এখানে আপনার গুগল ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড প্রবেশ করিয়ে আপনার লক স্ক্রীনকে বাইপাস করে ফেলতে পারবেন।

আপনার ডিভাইজকে কখনোই আপনি গুগল ইউজার নেম বা পাসওয়ার্ড ছাড়া বাইপাস করতে পারবেন না, যদি আপনার ডিভাইজে সিকিউরিটি হোল না থাকে। যাই হোক, রিকভারি মুড থেকে আপনার ফোনের ফ্যাক্টরি রিসেট করার মাধ্যমে সহজেই পিন/প্যাটার্ন/পাসওয়ার্ড রিমুভ করতে পারবেন। কিন্তু  ফ্যাক্টরি রিসেট করলে ফোনের ডাটা গুলো মুছে যাবে। তবে ফ্যাক্টরি রিসেট করার পরে আলাদা গুগল অ্যাকাউন্ট সেখানে লগইন করতে পারবেন।

আসলে আপনি যে ডিভাইজটির পাসওয়ার্ড বাইপাস করবেন আপনার যদি ওই ডিভাইজটির সম্পর্কে ভালো টেকনিক্যাল ধারনা থাকে তাহলে উপরের ট্রিক গুলো দিয়ে কাজ না হলেও কোনো না কোন ট্রিক এপ্লাই করে আপনি পাসওয়ার্ড বাইপাস করে ফেলতে পারবেন কিন্তু আপনি যদি উপরের ট্রিকগুলো-ও না জানেন এবং যে ডিভাইজের পাসওয়ার্ড বাইপাস করবেন সে ডিভািইজের আপারেটিং সম্পর্কে-ও আপনার মোটেও ধারনা না থাকে তবে পাসওয়ার্ড বাইপাস আপনার কাজ নয়।

0 Comments

Leave a reply

CONTACT US

We're not around right now. But you can send us an email and we'll get back to you, asap.

Sending
©2012 - 2020 Techwave.Asia All Rights Reserved.
or

Log in with your credentials

Forgot your details?